নতুন প্রজন্মের সাবমেরিন তৈরি করছে রাশিয়া

0
137

ফোর্সেস নিউজ ডেস্ক : রাশিয়া পরবর্তী প্রজন্মের ডুবোজাহাজ তৈরির প্রস্তুতি শুরু করেছে।

মার্কিন নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট ন্যাটোর সাবমেরিন-বহরকে মোকাবেলার লক্ষ্য সামনে রেখে আক্রমণের কাজে ব্যবহার উপযোগী পুরোপুরি নতুন শ্রেণির এ সাবমেরিন নির্মাণ করবে মস্কো।

সাইবেরিয়ার তুষার-কুকুরের একটি প্রজাতির নাম অনুযায়ী নতুন এ শ্রেণির নাম দেয়া হয়েছে লাইকা।

প্রায় ৫০ বছর পর মস্কো নতুন শ্রেণির সাবমেরিন তৈরির পদক্ষেপ নিতে চলেছে। অবশ্য তৈরিতে কতদিন লাগবে বা শেষ পর্যন্ত রুশ নৌবহরকে কয়টা সাবমেরিন হস্তান্তর করা হবে সে বিষয়ে এখনও কিছুই জানা যায়নি।

দুনিয়ার অন্যতম বৃহত্তম সাবমেরিন-বহর রয়েছে রুশ ফেডারেশনের। এ বহরে রয়েছে আক্রমণের কাজে ব্যবহার যোগ্য পরমাণু এবং প্রচলিত উভয় ধরণের সাবমেরিন। রয়েছে গাইডেড ক্ষেপণাস্ত্রবাহী সাবমেরিন।

এতে রয়েছে ভূমিতে আক্রমণযোগ্য ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র, ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র এবং পরমাণু ক্ষেপণাস্ত্র সজ্জিত সাবমেরিন। এ ছাড়াও এতে থাকেব গাইডেড টর্পেডো, জাহাজ বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র।

শীতল যুদ্ধের পর দুই দফা সাবমেরিন তৈরি করছে রাশিয়া। লাইকার মাধ্যমে তৃতীয়বার সাবমেরিন নির্মাণের পথে পা বাড়াবে দেশটি। রুশ নৌবহরের আকুলা বা হাঙ্গর এবং ন্যাটোর দেয়া সাংকেতিক নাম ভিক্টর শ্রেণির সাবমেরিনের পরিবর্তে ব্যবহৃত হবে লাইকা। এমন কথা শোনা যাচ্ছে। লাইকাতে অনেক নতুন নতুন ব্যবস্থা থাকবে। পশ্চিমা সাবমেরিন বহরকে মোকাবেলার জন্য এ সব নতুন ব্যবস্থা লাইকায় বসানো হবে।